শাশুড়ি-ননদের দেওয়া আগুনে পুড়ে মরল গৃহবধূ

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৫ মে ২০১৯, ২:৫৮ অপরাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 5 বার
শাশুড়ি-ননদের দেওয়া আগুনে পুড়ে মরল গৃহবধূ শাশুড়ি-ননদের দেওয়া আগুনে পুড়ে মরল গৃহবধূ

শ্বশুর বাড়ির লোকজনের দেওয়া আগুনে দগ্ধ গৃহবধূ শজি খাতুন (৩২) মারা গেছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

এর আগে গত ৯ মে ভোররাতে পাবনার আমিনপুরের তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় শাশুড়ি-ননদরা।

আমিনপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এস এম মঈনুদ্দিন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত শজি খাতুন বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার ত্রিমহোনী তালিমনগর গ্রামের ছুরমান মণ্ডলের স্ত্রী।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, ছুরমান মণ্ডল কয়েক বছর ধরে মালয়েশিয়া থাকেন। সেখান থেকে তিনি প্রতি মাসে তার বোন সামেলা খাতুনের একাউন্টে টাকা পাঠান। ননদ সামেলা খাতুন প্রতি মাসে মাত্র ৩ হাজার টাকা করে দেন তার ভাবী শজি খাতুনকে। কিন্তু অল্প টাকায় সংসার চালানো সম্ভব না হওয়ায় শাশুড়ি-ননদ, ভাসুর ও জায়ের সঙ্গে কলহ দেখা দেয় শজি খাতুনের।

এ নিয়ে ৯ মে ভোরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে শাশুড়ি, ননদ ও ভাসুরের বউ মিলে শজি খাতুনের শরীরে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। চিৎকারে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করেন চিকিৎসক। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান শজি খাতুন।

খবর পেয়ে ওইদিন সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও ঘটনায় জড়িত অভিযোগে ননদ সামেলা খাতুনকে আটক করে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর বাবা ফজিবর রহমান বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। গৃহবধূর মৃত্যুর কারণে মামলাটিতে একটি ধারা যুক্ত হয়ে হত্যা মামলায় রূপান্তর করা হবে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিম হোসেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seven + seventeen =


আরও পড়ুন