ফান্ড থেকে প্রধান শিক্ষকের লাখ টাকার ধূমপান, দুদককে ইউএনওর চিঠি

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৩ মার্চ ২০১৯, ১:৫৬ অপরাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 25 বার
ফান্ড থেকে প্রধান শিক্ষকের লাখ টাকার ধূমপান, দুদককে ইউএনওর চিঠি ফান্ড থেকে প্রধান শিক্ষকের লাখ টাকার ধূমপান, দুদককে ইউএনওর চিঠি

মাগুরার মহম্মদপুরে একেএম নাসিরুল নামে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের ফান্ড থেকে লাখ টাকা ব্যয়ে ধূমপানসহ নানান আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগের সত্যতা মিলেছে।

অভিযুক্ত একেএম নাসিরুল ইসলাম উপজেলার সরকারি আরএসকেএইচ ইনস্টিউটের প্রধান শিক্ষক। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) চিঠি দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি  বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক এ কে এম নাসিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে ‘স্কুল ফান্ড থেকে ধূমপানের পেছনে ব্যয় লাখ টাকা!’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।

যেখানে তার বিরুদ্ধে ৭২ হাজার ২০ টাকার সিগারেট, ২১ হাজার ৫ টাকার পান পাতা এবং ১ হাজার ৪৮২ টাকার বিস্কুট ক্রয় করে স্কুল ফান্ড থেকে পরিশোধের অভিযোগ ওঠে।

এছাড়াও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে জালিয়াতির মাধ্যমে ৪ জন কর্মচারী নিয়োগ করে মোটা অঙ্কের বাণিজ্যের পাশাপাশি বিদ্যালয়ের জায়গায় মার্কেট বরাদ্দ, স্কুলের গাছ বিক্রি, শিক্ষকদের কাছ থেকে বিদ্যালয় সরকারিকরণের নামে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়।

এর প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়ের সভাপতি মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফুর রহমান ঘটনার তদন্তে একাধিক কমিটি গঠন করেন। যাদের তদন্তে প্রধান শিক্ষক একেএম নাসিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক নাসিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে সোমবার বিভাগীয় ও আইনগত ব্যবস্থা নিতে দুদক, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, খুলনা বিভাগীয় কমিশনারসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে চিঠি পাঠিয়েছেন বলে জানা গেছে।

দুর্নীতির বিষয়ে মহম্মদপুর আরএসকেএইচ ইনস্টিটিউটের অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক একেএম নাসিরুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

তবে বিদ্যালয়ের সভাপতি মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফুর রহমান বলেন, প্রধান শিক্ষকের দুর্নীতির তদন্তে পৃথক পৃথক তিনটি কমিটি গঠন করা হয়। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। যার প্রেক্ষিতেই পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিভিন্ন দফতরে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। নির্দেশনা পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + 5 =


আরও পড়ুন