কর্মী নিতে ফের আশ্বাস মালয়েশিয়ার

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৫ মে ২০১৯, ৫:৪২ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 15 বার
কর্মী নিতে ফের আশ্বাস মালয়েশিয়ার কর্মী নিতে ফের আশ্বাস মালয়েশিয়ার

প্রায় নয় মাস ধরে বাংলাদেশিদের জন্য বন্ধ মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার। দেশটির দুই মন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন, ফের মালয় শ্রমবাজার খুলবে বাংলাদেশিদের জন্য। বিষয়টি শিগগির মন্ত্রিসভায় তোলা হবে বলে জানিয়েছেন মালয় মানবসম্পদমন্ত্রী তান কুলাসেগারান।

মালয়েশিয়া সফররত বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ইমরান আহমেদের সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠকে তিনি এ আশ্বাস দিয়েছেন। মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হাজী মুহিউদ্দিন বিন হাজি মোহা ইয়াসিনের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী। তিনিও আশ্বাস দিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে আবারও কর্মী নেওয়া হবে। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তি ও প্রতিমন্ত্রীর সফর সঙ্গীদের সূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, দুই দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে, কবে নাগাদ মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার বাংলাদেশিদের জন্য খুলবে। আগামী ৩০ ও ৩১ মে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক হতে পারে। গত বছরের সেপ্টেম্বরের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের সবশেষ বৈঠক হয়েছিল ঢাকায়। সেবার কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই বৈঠক শেষ হয়।

গত বছর মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেওয়ার চুক্তি বাতিল করেন।

মঙ্গলবার প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ও মালয় মানবসম্পদমন্ত্রীর বৈঠকে মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুরক্ষা এবং অবৈধ বাংলাদেশী কর্মীদের বৈধ করার সুযোগ দিতেও আলোচনা হয়। অবৈধ কর্মীদের হয়রানি বন্ধের অনুরোধ জানান প্রতিমন্ত্রী। আর সিন্ডিকেট হবে না বলে সম্মত হয়েছে দুই দেশ। মালয় মন্ত্রী জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ও নেপাল থেকে কর্মী নেওয়ার বিষয়টি তার দেশ সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে।

বৈঠকে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন এবং উপসচিব আবুল হোসেনসহ দুই দেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৃহস্পতিবার মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মী গ্রহনকারী বৃহত্তম প্রদেশ সারাওয়াক’র গর্ভনরের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রতিমন্ত্রী।

অনিয়মের কারণে বন্ধ হওয়ার পর গত সেপ্টেম্বরের পর ভিসা দিচ্ছে না মালয়েশিয়া। চলতি বছরের প্রথম চার মাসে মাত্র ৫০ কর্মী মালয়েশিয়া পেরেছেন। গত বছরের প্রথম চার মাসে গিয়েছিলেন ৩৮ হাজার ৮৬৫ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

fifteen + 13 =