চীনপন্থী বিলের বিরুদ্ধে রাজপথে ‘২০ লাখ বিক্ষোভকারী’

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৭ জুন ২০১৯, ৫:৫৪ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 7 বার
চীনপন্থী বিলের বিরুদ্ধে রাজপথে ‘২০ লাখ বিক্ষোভকারী’ চীনপন্থী বিলের বিরুদ্ধে রাজপথে ‘২০ লাখ বিক্ষোভকারী’

চীনপন্থী প্রত্যর্পণ বিল পুরোপুরি বাতিলের দাবিতে হংকংয়ে ২০ লাখ বিক্ষোভকারী রাজপথে নেমেছে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। তবে পুলিশ বলছে বিক্ষোভকারীর সংখ্যা ৩ লাখ ৩৮ হাজার। খবর বিবিসি, রয়টার্স।

আয়োজকদের বলা বিক্ষোভকারীর সংখ্যা সত্য হলে হংকংয়ের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ।

প্রত্যর্পণ বিল পুরোপুরি বাতিল ছাড়াও রবিবার হংকংয়ের রাস্তায় লাখ লাখ বিক্ষোভকারী হংকংয়ের চীনপন্থি প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের পদত্যাগ দাবি করে। ইতিমধ্যে বিক্ষোভের মুখে গতকাল জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন প্রধান নির্বাহী লাম।

গতকাল কালো পোশাক পরে অনেকে সাদা ফুল হাতে বিক্ষোভে অংশ নেয়। অনেকে স্লোগান দিতে থাকে যে, গুলি করো না, আমরা হংকংবাসী।

বিক্ষোভকারীরা হংকংয়ের শাসক লামের পদত্যাগ, বিলের কার্যক্রম স্থায়ীভাবে বাতিল ও বল প্রয়োগের জন্য পুলিশকে জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানায়।

গণতন্ত্রপন্থি আইন প্রণেতা ক্লদিয়া মো বলেন, এই বিল সম্পূর্ণরূপে বাতিলে লাম অস্বীকৃতি জানালে আমরা সরবো না। তিনিও থাকবেন, আমরাও থাকবো। বিক্ষোভকারীরা হংকংয়ের প্রধান সড়ক, রেল স্টেশনে জড়ো হয়।

চীনপন্থী বিলের বিরুদ্ধে রাজপথে ‘২০ লাখ বিক্ষোভকারী’

বিচারের জন্য বাসিন্দাদের চীনের মূল ভূূ-খণ্ডে পাঠানোর সুযোগ রেখে একটি বহিঃসমর্পণ বিল পাসের উদ্যোগ নিয়েছিল হংকংয়ের কর্তৃপক্ষ। কিন্তু বেইজিংয়ের দুর্বল আইন এবং মানবাধিকার রেকর্ডের কারণে সেখানে কাউকে পাঠানো নিরাপদ মনে করছে না হংকংয়ের বাসিন্দারা।

তারা মনে করছেন, বিলটি পাস হলে তা অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে চীনের হস্তক্ষেপের সুযোগ বাড়াবে। এ কারণে বিলটি বাতিলের দাবিতে গত সপ্তাহে হংকংয়ে ব্যাপক বিক্ষোভ ও সহিংসতা হয়।

বিক্ষোভের মুখে শনিবার হংকংয়ের শাসক ক্যারি লাম প্রস্তাবিত বিলটির কার্যক্রম পিছিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেন। ধারণা করা হয়েছিল, সরকারের এ সিদ্ধান্তে পরিস্থিতি শান্ত হবে। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা আবারও রাজপথ দখল করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + sixteen =