চীনকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৯ জুলাই ২০১৯, ৬:২১ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 9 বার
চীনকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের চীনকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর আবরামস ট্যাঙ্ক ও স্টিঞ্জার ক্ষেপণাস্ত্রসহ সম্ভাব্য ২.২ বিলিয়ন ডলার মূল্যের অস্ত্র তাইওয়ানের কাছে বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে। সোমবার পেন্টাগন এ তথ্য জানায়।খবর এএফপি’র।

এমন ঘোষণায় বেইজিং ক্ষুব্ধ হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কেননা, চীন তাইওয়ানকে এখনো তাদের ভূখণ্ডের অংশ হিসেবে বিবেচনা করে থাকে।সম্ভাব্য অস্ত্র বিক্রির ব্যাপারে এরআগে তারা ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করে।

প্রতিরক্ষা নিরাপত্তা সহযোগিতা সংস্থা (ডিএসসিএ) জানায়, সম্ভাব্য অস্ত্র বিক্রির এ চুক্তির ব্যাপারে কংগ্রেসকে অবহিত করা হয়েছে।এতে ১০৮টি এম১এ২টি আবরামস ট্যাঙ্ক, ২৫০ টি স্টিঞ্জার ক্ষেপণাস্ত্র এবং সংশ্লিষ্ট সরঞ্জামাদি বিক্রির কথা অন্তর্ভূক্ত থাকবে।

ডিএসসিএ’র এক বিবৃতিতে বলা হয়, প্রস্তাবিত ট্যাঙ্ক বিক্রি গ্রহীতাদের প্রধান যুদ্ধ ট্যাঙ্ক বহরের আধুনিকায়নে এবং বর্তমান ও ভবিষ্যতের আঞ্চলিক হুমকি মোকাবেলায় তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি অবদান রাখবে। এছাড়া এতে তাদের স্বদেশের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করবে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এসব ক্ষেপণাস্ত্র গ্রহীতা দেশের নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা সক্ষমতা উন্নয়নে সহায়তার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক নীতি ও জাতীয় নিরাপত্তা সহায়ক হবে। এছাড়া এটি এ অঞ্চলের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, সামরিক ভারসাম্য এবং অর্থনৈতিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ শক্তি হবে।

ডিএসসিএ জানায়, এ অঞ্চলের মৌলিক সামরিক ভারসাম্যের’ ক্ষেত্রে এর কোন বিকল্প নেই।

এ মাসের গোড়ার দিকে চীন তাইওয়ানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য অস্ত্র বিক্রির ব্যাপারে বেইজিংয়ের বিরোধীতার কথা জানিয়েছে।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেং শুয়াং বলেন, ‘তাইওয়ানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র বিক্রির সিদ্ধান্ত অত্যন্ত স্পর্শকাতর এবং ক্ষতিকর এটা যুক্তরাষ্ট্রকে বুঝতে এবং এক চীন নীতি মেনে চলতে আমরা বারবার গুরুত্বারোপ করেছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × five =