কাসজংয়ে বৈদ্যুতিন লোকোমোটিভগুলি ঠিক করতে, ট্রিপল ক্যানোপি তৈরি করা হচ্ছে

কাসজং রেলস্টেশনে ট্রিপল শেড নির্মাণ
ছবি: কাসগঞ্জ

আম্মার ওজালা বৈদ্যুতিন সংবাদপত্র পড়ুন
যে কোনও জায়গায় এবং যে কোনও সময়।

* বার্ষিক সাবস্ক্রিপশন কেবলমাত্র 299 ডলার সীমিত সময় অফারের জন্য। দ্রুত – দ্রুত!

খবর শুনুন

কাসগঞ্জ কসগঞ্জ রেলওয়ে উপহার দিয়েছে। জাজাংয়ে এখন লোকোমোটিভগুলি মেরামত করা হবে। প্রথমবারের মতো, কাশগঞ্জ মেরামত কেন্দ্রে একটি ট্রিপল শেড (ওয়ার্কশপ) প্রস্তুত করা হচ্ছে। কোনও প্রযুক্তিগত ইঞ্জিন ব্যর্থতা বা ইঞ্জিন ব্যর্থতা হলে তা অবিলম্বে মেরামত করা হবে। এটি ট্রেনগুলির ভ্রমণের সময় হ্রাস করবে এবং যাত্রীদের সময় সাশ্রয় করবে।
কাসগঞ্জ জংশন রেলওয়ে স্টেশন ইজতনগর রেলওয়ে বিভাগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন। এই স্টেশনটি সমভূমিতে পর্বত যুক্ত করে পূর্বांचালকে সংযুক্ত করে। এখানে বেরিলি, কানপুর এবং মথুরা ট্র্যাকগুলিতে বৈদ্যুতিক কাজ শেষে বৈদ্যুতিক মোটরগুলি আপ এবং চলমান রয়েছে। ডিজেল ইঞ্জিন পাইলটদের বৈদ্যুতিক মোটর চালনার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে কাসগঞ্জের জন্য আর একটি উপহার পেল।
রেলপথ বৈদ্যুতিক মোটর সংশোধন করতে কাসগঞ্জ জংশনকে একটি ট্রিপল ক্যানোপি দিয়েছে। এর নির্মাণকাজও শুরু হয়েছিল। বৈদ্যুতিক মোটরটিতে কোনও প্রযুক্তিগত ত্রুটি থাকলে এই শেডটি উপকৃত হবে, মোটরটি তত্ক্ষণাত্ ঠিক হয়ে যাবে। ইঞ্জিন ব্যর্থ হলে ট্রেনটি ট্র্যাকটিতে থামবে না তবে সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করা হবে। ইজতনগর রেলপথ বিভাগের চিফ মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ার পঙ্কজ কুমার ড্রিল রেলটি পর্যবেক্ষণ করছেন।
এটি একটি বিশাল অর্জন
কাসগঞ্জ জংশন স্টেশনে ট্রিপল শেড নির্মাণ একটি বড় সাফল্য। বেরেলিতে এখনও একটি ভূগর্ভস্থ বেসিন রয়েছে। এদিকে, কানপুরের আনারগঞ্জে ট্রিপল শেড তৈরির প্রস্তুতি চলছে। কাসগঞ্জের মথুরা-কাসগঞ্জ-কানপুরের দিকে আসা দূরপাল্লার ইঞ্জিন বা গার্হস্থ্য ট্রেনগুলি মেরামত করা হবে।
– এই শেডে একযোগে 4 টি পজিশন স্থির করা যায়।
কাসগঞ্জ থেকে বেরিলি, কানপুর এবং মথুরা পর্যন্ত ট্রেনগুলি চলাচল করে।
মুক্তি-
ত্রিফাদ জাজাঙে নির্মিত হচ্ছে। ট্রিপল শেডে বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলি মেরামত করা সম্ভব হবে। ইঞ্জিনগুলি অন্য শহরে মেরামতের জন্য প্রেরণ করা হবে না। প্রযুক্তিগত ত্রুটি দেখা দিলে প্রম্পট ফিক্সটিও বিলম্বিতা হ্রাস করবে।
– রাজেন্দ্র সিং, পিআরও, ইজতনগর রেলওয়ে বোর্ড

READ  ইউ কে 07 টোল বাধা বহনকারী যানবাহনের জন্য দেরাদুনে একটি মাসিক ট্রানজিট পারমিট দেওয়া হবে

কাসগঞ্জ কসগঞ্জ রেলওয়ে উপহার দিয়েছে। জাজাংয়ে এখন লোকোমোটিভগুলি মেরামত করা হবে। প্রথমবারের মতো, কাশগঞ্জ মেরামত কেন্দ্রে একটি ট্রিপল শেড (ওয়ার্কশপ) প্রস্তুত করা হচ্ছে। কোনও প্রযুক্তিগত ইঞ্জিন ব্যর্থতা বা ইঞ্জিন ব্যর্থতা হলে তা অবিলম্বে মেরামত করা হবে। এটি ট্রেনগুলির ভ্রমণের সময় হ্রাস করবে এবং যাত্রীদের সময় সাশ্রয় করবে।

কাসগঞ্জ জংশন রেলওয়ে স্টেশন ইজতনগর রেলওয়ে বিভাগের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন। এই স্টেশনটি সমভূমিতে পর্বত যুক্ত করে পূর্বांचালকে সংযুক্ত করে। এখানে বেরিলি, কানপুর এবং মথুরা ট্র্যাকগুলিতে বৈদ্যুতিক কাজ শেষে বৈদ্যুতিক মোটরগুলি আপ এবং চলমান রয়েছে। ডিজেল ইঞ্জিন পাইলটদের বৈদ্যুতিক মোটর চালনার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে কাসগঞ্জের জন্য আর একটি উপহার পেল।

রেলপথ বৈদ্যুতিক মোটর সংশোধন করতে কাসগঞ্জ জংশনকে একটি ট্রিপল ক্যানোপি দিয়েছে। এর নির্মাণকাজও শুরু হয়েছে। বৈদ্যুতিক মোটরটিতে কোনও প্রযুক্তিগত ত্রুটি থাকলে এই শেডটি উপকৃত হবে, তত্ক্ষণাত মোটরটি মেরামত করা হবে। ইঞ্জিন ব্যর্থ হলে ট্রেনটি ট্র্যাকটিতে থামবে না তবে সাথে সাথে মেরামত করা হবে। ইজতনগর রেলপথ বিভাগের চিফ মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার পঙ্কজ কুমার ড্রিল রেলটি পর্যবেক্ষণ করছেন।

এটি একটি বিশাল অর্জন

কাসগঞ্জ জংশন স্টেশনে ট্রিপল শেড নির্মাণ একটি বড় সাফল্য। বেরেলিতে এখনও একটি ভূগর্ভস্থ বেসিন রয়েছে। এদিকে, কানপুরের আনোয়ারগঞ্জে ট্রিপল বেসিন নির্মাণের প্রস্তুতি চলছে। কাসগঞ্জের মথুরা-কাসগঞ্জ-কানপুরের দিকে আসা দূরপাল্লার ইঞ্জিন বা গার্হস্থ্য ট্রেনগুলি মেরামত করা হবে।

– এই শেডে একযোগে 4 টি পজিশন স্থির করা যায়।

কাসগঞ্জ থেকে বেরিলি, কানপুর এবং মথুরা পর্যন্ত ট্রেনগুলি চলাচল করে।

মুক্তি-

ত্রিফাদ জাজাঙে নির্মিত হচ্ছে। ট্রিপল শেডে বৈদ্যুতিক লোকোমোটিভগুলি মেরামত করা সম্ভব হবে। ইঞ্জিনগুলি অন্য শহরে মেরামতের জন্য প্রেরণ করা হবে না। প্রযুক্তিগত ত্রুটি দেখা দিলে প্রম্পট ফিক্সটিও বিলম্বিতা হ্রাস করবে।

– রাজেন্দ্র সিং, পিআরও, ইজতনগর রেলওয়ে বোর্ড

Written By
More from Ayhan Niaz

জাবালপুর নিউজ ক্যালেন্ডারে এর শক্তিশালী শক্তির অবকাঠামো দেখানো হয়েছে

প্রকাশের তারিখ: | শনিবার, জানুয়ারী 02, 2021 11:05 পূর্বাহ্ণ (IST) জবলপুর, নাইডোনিয়া...
Read More

প্ৰত্যুত্তৰ দিয়ক

আপোনৰ ইমেইল ঠিকনা প্ৰকাশ কৰা নহ'ব । প্ৰয়োজনীয় ক্ষেত্ৰসমূহত *এৰে চিন দিয়া হৈছে