একটি বিশেষ পার্সেল ট্রেন জাবালপুর থেকে বাংলাদেশে যায়

লোহা ও স্টিলের পাইলন বহনকারী একটি মালবাহী ট্রেন বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিল

জবলপুর। বৃহস্পতিবার একটি মালবাহী ট্রেন জাবালপুর থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এটি বিভাগীয় রেলওয়ের পরিচালক সঞ্জয় ফিশওয়াস এবং সিনিয়র ডিসিএম ফিশওয়ারানগান পতাকা প্রদর্শন করেছিলেন। ট্রেনটি লোহা ও ইস্পাত টাওয়ার নিয়ে জসালপুর মালগোডাম থেকে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।
লোহা এবং ইস্পাত টাওয়ারের অংশগুলি মেসার্স ইনল্যান্ড ওয়ার্ল্ড লজিস্টিক মুম্বাই গোসালপুর মালগোডাম বুকিং দিয়েছিলেন। সন্ধ্যা 5 টায় মালবাহী ট্রেনের প্রথম শেল্ফ বাংলাদেশ রেলওয়ে বানপোল স্টেশনে ছেড়ে যান। এই বালুচরটি কাটনি, সিংরৌলি, মার্গ, আসানসোল, বর্ধমান, বনগাঁ এবং পেট্রাপোল (ভারতীয় সীমান্তের শেষ স্টপ) হয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে। এই মালবাহী ট্রেনে 24 জন প্রশিক্ষক রয়েছেন। আয়রন এবং ইস্পাত টাওয়ারের টনরেজ প্রায় 1,400 টন। এর মালামালটি প্রায় 43 টাকা যা রেলওয়ে রাজস্ব হিসাবে নেয়। জবালপুর থেকে প্রেরিত টাওয়ারটি (বহনযোগ্য) যোগাযোগ টাওয়ার হিসাবে ব্যবহারের জন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন শহরে সমবেত হবে। মুম্বাই উল্লিখিত সংস্থাটি ভবিষ্যতে জবালপুর থেকে আন্তর্জাতিকভাবে 50 হাজার টনেরও বেশি পরিবহন করবে। পরিচালনা পর্ষদের বিজনেস ডেভলপমেন্ট গ্রুপের সদস্যরা আন্তর্জাতিক রেল পরিবহণের চলাচলের বিশেষ সমর্থনকারী।






আরো দেখুন










READ  ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে তিন বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী গ্রেপ্তার - ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে তিন বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীকে গ্রেপ্তার

প্ৰত্যুত্তৰ দিয়ক

আপোনৰ ইমেইল ঠিকনা প্ৰকাশ কৰা নহ'ব । প্ৰয়োজনীয় ক্ষেত্ৰসমূহত *এৰে চিন দিয়া হৈছে