দৌলতপুরের দুর্গম চর চিলমারী ইউনিয়নের মানবতার সেবক বিপুল রহমান

অথর
বিশেষ প্রতিনিধি  কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :৮ মে ২০২০, ৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 415 বার
দৌলতপুরের দুর্গম চর চিলমারী ইউনিয়নের মানবতার সেবক বিপুল রহমান আওয়ামীলীগ নেতা বিপুল রহমান

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন পদ্মার তীরবর্তী চিলমারী ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের পাশে থেকে মানবতার সেবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন আওয়ামী লীগ নেতা বিপুল রহমান ।  ইউনিয়নটি মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ায় বন্যাসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে সাধারণ মানুষের পাশে থাকায় সর্বমহলে ইতিমধ্যে প্রশংসিত হয়েছেন তিনি । চলমান করোনা সঙ্কটে কর্মহীন হয়ে পড়া এবং অসহায় মানুষের পাশে থেকে সাহায্য-সহযোগিতাসহ এলাকার লোকজনকে সচেতন করতে রাতদিন কাজ করে যাচ্ছেন বিপুল রহমান ।
প্রতিদিন ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় সচেতনতামূলক বিভিন্ন বার্তা মাইকে প্রচার করছেন । ঘুরে ঘুরে যেসব মানুষের বাড়িতে খাবার নেই তাদেরকে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন । করোনা সংকটে যারা মানবতার জীবন যাপন করছেন তাদের তালিকা তৈরি সহ সংকট নিরসনে সবার সাথে সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে দুর্যোগ মোকাবেলায় ইতিমধ্যে প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছেন বিপুল রহমান ।
শুধু করনের সংকট নয় ইতিপূর্বেও এই চিলমারী ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের পাশে থেকে তাদের দুঃখ-দুর্দশা সমস্যা সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছেন বিপুল রহমান । এলাকার গরিব দুঃখী মেধাবী ছাত্রদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান সহ অসচ্ছল পরিবারের ছেলেমেয়েদের পড়ালেখার সুযোগ সৃষ্টি ও আর্থিক সমস্যার সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন বিপুল রহমান । তার বাবা সাবেক চিলমারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রহমান। বাবার আদর্শ এবং দেখানো পথে দৃঢ় প্রত্যয় সারা জীবন চরাঞ্চলের মানুষের পাশে থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন নবীন এই আওয়ামী লীগ নেতা।
বিপুল রহমান জানান, চিলমারি দৌলতপুরের অবহেলিত একটি ইউনিয়ন। মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয় এই ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই লাজুক । যোগাযোগ ববস্থা লাজুক হওয়ায় বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে এই ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ। বর্তমান সরকার নিরলসভাবে চেষ্টা করছেন ইউনিয়নের মানুষকে উন্নয়নের ছায়াতলে নিতে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিদ্যুৎহীন ইউনিটিতে ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হচ্ছে। চেষ্টা হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থার সমস্যা নিরসনে । বিপুল রহমান জানান, আমি সংকল্প করেছি সুবিধাবঞ্চিত চরাঞ্চলের মানুষের পাশে থেকে তাদের সমস্যা সমাধানের জন্য কাজ করে যাবো ।
এছাড়াও তিনি বলেন, অত্র ইউনিয়নে নদী ভাঙ্গনের কারনে অনেক মানুষ দারিদ্রতা স্বীকার হয়েছে। সৃষ্টি হয়েছে অনেক বেকার। আমার ইউনিয়নের মুল সমস্যা এই সমস্ত তালিকা হাল নাগাদ করার জন্য মাননীয় এম পি মহোদয় ও উপজেলা প্রশাষন এর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
 
সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − 11 =